কার্মা একটি কুকুরছানা

Minhaz Fahme
4 min readFeb 23, 2022

এলাকায় এখন যেমন কয়েকটা ডিশ/ ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটের আউটলেট থাকে, আমাদের কৈশোরে আমরা তেমন পেয়েছি সিডির দোকান। এসব দোকানে তখন অধিকাংশ সময় বাজত “কৃষ্ণ কৃষ্ণ”, কিংবা ফুয়াদ ভাইএর ভ্যারিয়েশন ২৫ থেকে নিটোল পায়ে। বালাম ভাই আর তাহসান ভাই এর গানও বাজত, বিশেষ করে নতুন অ্যালবাম রিলিজের পরের সময়টা জুড়ে। “নারে নান না রে নান নারে না রি রে না” — বালাম ভাই এর এই গানের নাচ আর মিম বারো- চৌদ্দ বছর পরে এসে এখন ভাইরাল হলেও এই গানগুলো তখন কোন দোকানে বাজা মানে ওসব সিডি ডিভিডির দোকান একটু জাতের- এটা ছিল একটা সাধারণ সূত্র। বিকট ভলিউমে হিন্দি গান বাজাতে থাকে এমন দোকান সাবধানে এড়িয়ে চলা হত। খুবই স্বাভাবিক- ওসব দোকানে আমাদের চাহিদা যোগানোর সিডি/ ডিভিডি পাওয়া যেত না। পাইরেসি সম্পর্কে তখনো তেমন কিছু বুঝি না, কিন্তু সিডি কিনে গান শোনা শুরু করলাম। ফুয়াদ ভাই এর ক্রমান্বয় এলবামের অরিজিনাল সিডি যেটা কিনেছিলাম এখনও আছে সাথে। তখন মেঘের আড়াল থেকে আমি দেখছি ওই তোমায়…

তো একদিন অর্থহীনের অসমাপ্ত-১ অ্যালবাম কেনার কিছুদিন পর যখন আবার গেলাম দোকানে, আমার অর্থহীন প্রীতি দেখে আমাকে দোকানদার বলল ডিস্কোগ্রাফি নিয়ে যেতে। অর্থহীনের সব গান- ১টা সিডিতে! কী লোভনীয় ব্যাপার! বাসায় এনে দেখি সিডির উল্টোপাশে সাদা রং। আমি একটু হতাশ হলাম, যে সিডির এক পাশে রঙ করা নাই কেন, অসমাপ্ত কিংবা ক্রমান্বয় সিডির মত। তখনো জানতাম না যে সিডি কিনে নিজেই সেটা বার্ন করা যায়। গেমের সিডিতে একটা মজা ছিল। পিছনে এক্টিভেশন কোড থাকত, যেটা অনেক আগ্রহের বিষয় ছিল। প্রিন্স অব পার্সিয়া ওয়ারিয়র উইদিন এর কথা আজও মনে পড়ে। তো, আরেকটু বড় হওয়ার পর দেখলাম ক্র্যাক নামে একটা জিনিস আছে যেটা কপি করতে হয়। আমি অবাক হয়ে গেলাম। এ আবার কী জিনিস?! বুঝদার বন্ধুর কাছ থেকে বুঝতে পারলাম আমি টাকা দিয়ে যে গেমের সিডিটা কিনেছি সেটা আসলে পাইরেটেড কপি। তো, পাইরেসি কী জিনিস, সেটা খায় না মাথায় দেয় বুঝতাম না এর আগে। এটা ভাল না খারাপ, সেটাও কোথাও পড়ায় নাই, শিখায় নাই। আমি ভাবতাম এমনেই মনে হয় সবাই গেম খেলে, গান শুনে, মুভি দেখে। খালি একটু মন খারাপ হইত যে রঙ আর ডিজাইন করা সিডি কেন পাইনা আর। বই পড়ার অভ্যেস ছোটবেলা থেকে। বয়স যখন সাত, তখন থেকে প্রতি বছর বইমেলায় যাই। তিনটা অনুবাদ শেষ করার পর হ্যারি পটার এন্ড গবলেট অব ফায়ারের অনুবাদটা পড়তে গিয়ে টের পেলাম এবার আর ভালো হয়নাই অনুবাদটা। এরপর থেকে ‘অরিজিনাল’ ইংরেজি বই কিনে পড়া শুরু করলাম। এই ২০০-৩০০টাকা করে মনে হয়। আমি ভাবলাম, আরেহ অরিজিনালের দাম দেখি অনুবাদ বাংলা বই এর চেয়েও কম! কালের বিবর্তনে পিডিএফ আসল। সারাজীবনে কম পিডিএফ পড়া হয়নাই! একটা সময়ে এসে ব্র্যান্ডন স্যান্ডারসনের মিস্টবর্ন সিরিজ পড়া শুরু করলাম পিডিএফ এ। দম আটকে রেখে গিলে খেয়েছি পুরো ৬টা বই। এতদিনে অবশ্য পাইরেসি নিয়ে বেশ আইডিয়া হয়েছে। তাই বই গুলো শেষ করে অনলাইনে অর্ডার করে মিস্টবর্নের ৩ কপি অরিজিনাল বই কিনে নিলাম ৩০০০টাকায়। কেবল নিজের সাথে সৎ থাকার জন্য, আর কিচ্ছু নাহ! গেম আর মুভি পাইরেসি করে উপভোগ করা ছেড়েছি অনেকদিন আগেই। মানুষকে উৎসাহ দিই টাকা খরচ করে কনটেন্ট উপভোগ করতে। Spotify, Amazon Prime, Netflix, চরকি, র‍্যাবিটহোল সবাইকেই টাকা দিই মাসে মাসে, কারণ সামনে থেকে উদাহরণ তৈরি করতে হবে, আর নিজে যে কাজ করিনা সেটা মানুষকে কীভাবে করতে বলি?

আমার প্রথম বই, ইন ফ্যাক্ট প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে গেমের উপর লিখা প্রথম বই How to Make a Game বের হয় গত বছর, একাডেমিক বই এর দুনিয়ার সবচেয়ে বড় পাবলিশার Springer Nature এর পাবলিশিং হাউজ Apress থেকে। তো, গতকাল সহ-লেখক আমাকে একটা লিঙ্ক পাঠিয়ে বলল, “অভিনন্দন ব্রো, আমাদের বই পাইরেটেড হয়ে গেছে। এইযে পিডি এফ লিংক।”

নোলানের মুভিতে মাথা নষ্ট করা টুইস্ট যখন এসে সব মিলিয়ে দেয়, আমার ওই মুহূর্তে সেরকম লাগল আর খুব একচোট হেসে নিলাম আমি। এমন এক সমাজে বড় হয়েছি যেখানে পাইরেসি যে খারাপ সে জিনিস আমার জীবনের অধিকাংশ সময় জুড়েই আমাকে বুঝানো দূরে থাক, জানানোই হয়নাই। বাকি সময়েও নিজে কাজ করার আগ পর্যন্ত অসংখ্য পাইরেটেড জিনিস বুঝে/ না বুঝে গিলেছি নিজেকে, মানুষকে দিয়েছি। আর এখন নিজের আইপি পাইরেটেড হয়ে গেল। যে বই বিশ্বজুড়ে মানুষ ৩০০০-৫০০০ টাকায় কিনছে অনলাইনে, সেটা এখন বিনামূল্যেই যাচ্ছে।

আমি কি খুব দুঃখ পেয়েছি? মোটেও না! আমাদের বই লেখার উদ্দেশ্য যদি কোটিপতি হওয়া হত, তাহলে অন্য বই লিখতাম, বাংলাদেশে বসে গেম ডেভেলপমেন্টের উপর সেমি-একাডেমিক বই লিখতাম না। এই পাইরেটেড কপি পড়েও যদি কেউ গেম নিয়ে কাজ করতে বিন্দুমাত্র উৎসাহী হয়, অথবা তার অল্প একটু সাহায্য হয়, আর তার বানানো কোন গেম খেলে যদি আমি মজা পাই, তাহলেই আমি স্বার্থক! তাই পাইরেটেড হলেও, সংগ্রহ করুন প্লীজ! আর হাজার হোক, হাবিজাবি জিনিস তো কেউ পাইরেটেড করে না, তাই সময়টা নেহায়েত নষ্ট হবে না মনে হয় আপনার!

আর যদি কোন কারণে মনে হয় আমাকে আরও অল্প একটু উৎসাহ দেবেন, তবে Amazon থেকে কিনেই ফেলুন এক কপিঃ https://www.amazon.com/How-Make-Game-Publication-Avoiding/dp/1484269160

আর Goodreads এ একটা ছোট্ট রিভিউ দিয়ে আরও একজনকে উৎসাহ দিন এ জগতে আসতেঃ https://www.goodreads.com/book/show/56642451-how-to-make-a-game

ছোটবেলায় একটা গল্প পড়েছিলাম পাপ ছাড়েনা বাপকেও। ইংরেজিতে একে বলে কার্মা একটি কুকুরছানা। অনেক কিউট।

--

--

Minhaz Fahme

Penning fictions, reviews, and memories | Author of “How to Make a Game”, Entrepreneur, Game Designer & Metaverse Enthusiast